বিচ্ছেদের খবর ভিত্তিহীন বলে জানালেন নুসরাত জাহান

নুসরাত জাহান

নিখিল জৈন নাকি নুসরাত জাহানকে বিচ্ছেদর নোটিস পাঠাননি! সম্পূর্ণ ভুল খবর রটেছে! এমনই দাবী করেছেন নুসরাত জাহান। সোমবার রাতে জানা যায় নুসরতকে নাকি নিখিল ডিভোর্সের নোটিস পাঠিয়েছেন। এরপরই শুরু হয় কানাঘুষা।
তবে কি এবার বিবাহ জীবনে ইতি পড়তে চলেছে নুসরাতের? মঙ্গলবার অভিনেত্রী জানান, সম্পূর্ণ ভুল খবর রটেছে। তিনি ডিভোর্সের নোটিস পাননি।

নুসরাত এদিন একটি প্রেস বিবৃতি জারি করে বলেছেন, একটি নামী সংবাদমাধ্যমে যে খবর প্রকাশ হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। খবর প্রকাশের আগে অনুসন্ধান করার কথাও বলেছেন তিনি। কোনো নোটিস না পাওয়ার কথাও জানান অভিনেত্রী। এমনকী তিনি যে নিখিলের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন বলে অভিযোগ উঠেছে সেটিও মিথ্যা বলে দাবী অভিনেত্রীর।

কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল যশের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন নুসরাত। বিচ্ছেদের খবর সামনে আসার পর অনেকেই বলেছিলেন, সম্ভবত সেই কারণেই নিখিলের সঙ্গে বিচ্ছেদ হতে চলেছে তার। কিছুদিন আগে রাজস্থানের আজমেঢ়ে একসঙ্গে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন যশ ও নুসরাত।

গুঞ্জন বহুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল। কিন্তু এই ঘটনার পর নিখিলের সঙ্গে নুসরাতের সম্পর্কে আরো দূরত্ব তৈরি হয়। যদিও যশ বা নুসরাত কেউই নিজেদের ইনস্টাগ্রাম পেজে একে অপরের সঙ্গে রাজস্থান ভ্রমণের ছবি পোস্ট করেননি। তবে তাদের ফ্যান পেজের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে তাদের আজমেঢ় শরিফে যাওয়ার ছবি ও ভিডিও। আর তাতেই ছড়ায় যশের সঙ্গে প্রেম, আর নিখিলের সঙ্গে নুসরাতের বিয়ে ভাঙার খবর।

নুসরাত জাহান

তবে তখন নিখিল এনিয়ে কখনই মুখ খোলেননি। সোশ্যাল সাইটেও নুসরাত বিরোধী কোনো পোস্ট করেননি তিনি। যশও নুসরতের সঙ্গে তার সম্পর্ককে নিছক বন্ধুত্বই বলেছিলেন। নুসরাত নিজেও তার ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে চুপ ছিলেন।

২০১৯ এর ১৯ জুন সাত পাকে বাঁধা পড়েছিলেন নিখিল ও নুসরাত। সেই সময়ে দুজনের বিয়ে ছিল টলিপাড়ার চর্চার বিষয়। রিসেপশনে হাজির ছিল প্রায় পুরো টলিউড। এমনকী, নুসরত একবার অতিরিক্ত ওষুধ খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর জল্পনা ছড়ায় যে, নিখিলের সঙ্গে মনোমালিন্যের জেরেই অভিনেত্রী এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন। পরে অবশ্য সমস্ত জল্পনা উড়িয়ে ফের একসঙ্গে দেখা যায় দুজনকে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*