রসুন খেলে যেভাবে ওজন কমবে

ওজন কমবে

বাঙালির রান্নাঘরে রসুন থাকবেই। তীব্র গন্ধ ও স্বাদের এই মশলাটি আমাদের রান্নার অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যদিও এর তীব্র গন্ধের কারণে কেউ কেউ অপছন্দ করেন,তবে এর স্বাস্থ্য উপকারিতাগুলো অস্বীকার করা যায় না।

এটি কম-বেশি সবারই জানা, রসুন পুষ্টিতে ভরপুর। এটি পুষ্টিকর এবং সক্রিয় যৌগে ভরা, যা স্বাস্থ্যের নানা সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে সহায়তা করে। নিম্ন রক্তচাপে ভুগছেন বা সাধারণ সর্দি- সবক্ষেত্রে রসুন একটি দুর্দান্ত ঘরোয়া সমাধান হতে পারে। আশ্চর্যের বিষয় হলো, রসুন কয়েকটি নির্দিষ্ট উপায়ে পেটের চর্বি দূর করতে সহায়তা করতে পারে। এমনটাই প্রকাশ করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

রসুন এবং ওজন হ্রাস
রসুনে ভিটামিন বি ৬ এবং সি, ফাইবার, ম্যাঙ্গানিজ, ক্যালসিয়াম রয়েছে যা ওজন নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। জার্নাল অফ নিউট্রিশনে প্রকাশিত ২০১১ সালের সমীক্ষা অনুসারে, রসুনের নির্যাস নির্দিষ্ট কিছু নারীর ক্ষেত্রে ওজন কমাতে পারে।

অন্য গবেষণা অনুসারে গবেষকরা জানতে পেরেছেন যে, কিছু ইঁদুরকে আট সপ্তাহ ধরে রসুন খাওয়ানোর পর তাদের দেহের ওজন এবং ফ্যাট স্টোরেজ কিছুটা হ্রাস পেয়েছিল। এসব ছাড়াও রসুন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, শরীরকে ডিটক্সাইফাই করে এবং ঠান্ডা এবং ফ্লুর সঙ্গে লড়াই করতে সহায়তা করতে পারে। রসুন খেলে তা শক্তির স্তর এবং বিপাক বাড়াতে সহায়তা করতে পারে। ওজন কমাতে চাইলে রসুন খেতে পারেন এই তিন উপায়ে-

গোল মরিচ দিয়ে রসুন
এক গ্লাস পানিতে ২-৩ কোয়া রসুন সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে রসুনের কোয়াগুলো তুলে নিয়ে সেই পানিতে এক চিমটি কালো মরিচ যোগ করুন। ভালোভাবে মিশিয়ে খালি পেটে পান করুন।

রসুন খেলে যেভাবে ওজন কমবে

মধু দিয়ে রসুন
২-৩ কোয়া রসুন খোসা ছাড়িয়ে পিষে নিন। রসুনের সঙ্গে মধু মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি ১৫-২০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। এরপর এটি খেয়ে নিন। প্রতিদিন একবার খেতে পারেন।

রসুন ও লেবুর রস
এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে খোসা ছাড়ানোর কয়েক কোয়া রসুন ভিজিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণ এভাবে রেখে দিন। এবার এতে এক টেবিল চামচ লেবুর রস ভালোভাবে মেশান। সকালে মিশ্রণটি খালি পেটে পান করুন।

সাবধানতা
দিনে খুব বেশি রসুন খাবেন না কারণ এটি মুখে দুর্গন্ধ, মুখ বা পেটে জ্বালা, অম্বল, গ্যাস, বমি বমি ভাব, শরীরের গন্ধ এবং ডায়েরিয়ার কারণ হতে পারে। একদিনে রসুনের ২-৩ কোয়া খেলেই যথেষ্ট। এছাড়াও, আপনার ডায়েটে রসুন যোগ করার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*